My PhotoGraphy । আমার ক্যামেরা জ্ঞান ।

Samsung B3310


আমার নিজের অনেক শখ আমি একজন ফটোগ্রাফার হব। পারিবারিক চাপ এবং লিঙ্গ বৈষ্যমের কারনে তা আর হয়ে ওঠেনি। অনেক ছোট বেলা থেকেই ক্যামেরা দেখলে ই ছবি তোলার জন্য ব্যস্ত হয়ে পড়তাম।

গ্রামে তোলা Mobile samsung B3310
   আমার মনে আছে আমি যখন পঞ্চম শ্রেনীতে পড়ি তখন বাসার ছাদ এ আমার ভাইয়া বাগান করলেন। আমার তখন বৃত্তি পরিক্ষা চলছে। বিকেল বেলা ছাদে উঠে ভাইয়ার বাগানের কাছে গিয়ে দেখি ভাইয়ার পোষা বিড়াল দুই পা ভাজ করে উপরে তাকিয়ে আছে। আমি কি ব্যাপার তা জানার জন্য কাছে গেলাম আর দেখলাম একটা সুন্দর প্রজাপতি গোলাপ ফুলের উপর বসে আছে আর বিড়াল মহাশয় নিশ্চয়ি ওটাকে খাওয়ার জন্য অভাবে তাকিয়ে আছে। এটা দেখে ই আমি নিচে গিয়ে আলমারি খুলে ক্যামেরা নিয়ে উপরে দিলাম দৌড়। ছবি তোলার উত্তেজনায় ছাদে উঠতে গিয়ে হুরমুর করে পড়ে আমার হাত থেকে ক্যামেরা টা পড়ে যায়। তারপর??? সে এক ইতিহাস। বাবা-মা, ভাইয়া মিলে খুব বকুনী দিল। কিন্তু আমার ছোট চাচা আমাকে বাচালেন। আমাকে একটা ক্যামেরা কিনে দিলেন। আর বললেন আমি যেন যা দেখি তার ই ছবি তুলে রাখি। যদি চাচার আমার ছবি পছন্দ হয় তবে উনি পুরষ্কার দিবেন। আমি অনেক ছবি ই তুলেছি (ভালো হয়েছে কিনা তা জানি না), চাচা যে ছবি দেখতেন তাই ওনার ভাল লাগতো। আর সাথে সাথে পুরস্কার পেতাম।

আমার চাচাত বোন Mobile Nokia N70
আস্তে আস্তে বড় হলাম,। পড়াশোনার চাপে ছবি তোলা হত না। কিন্তু আমার চাচা ঠিক আমাকে মনে করিয়ে দিতেন। তিনি আমাকে একটা Samsung B3310 মোবাইল কিনে দিলেন। আমার তখন এস এস সি পরিক্ষা ও শেষ। গ্রামে বেড়াতে গেলাম তখন। খুব ছবি তুলতাম ওই মোবাইল্টা দিয়ে। নিচে কিছু ছবি দিলাম, আপনারা দেখে বলবেন যে কেমন হয়েছে।
গ্রামের পুকুর Mobile Samsung B3310

বড় চাচার ধানী জমি Mobile Samsung B3310

বড় চাচার ধানী জমি ২ Mobile Samsung B3310
কেমন হয়েছে তা জানাবেন। আর এটা আমার জিবনের প্রথম কোথাও লেখা। ভুল-ত্রুটি মার্জনীয়।
গ্রামের রাস্তা  Mobile Samsung B3310

পড়ন্ত বিকেল Mobile Samsung B3310

পড়ন্ত বিকেল ২ Mobile Samsung B3310

Previous Post
Next Post
Related Posts